• বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:৪৭ অপরাহ্ন
  • English Version

মাদারীপুরে ইটভাটায় পোড়ানো হচ্ছে কাঠ

নিজেস্ব প্রতিবেদক / ৬৭ ফেসবুক শেয়ার
আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২১
bd national news,

মাদারীপুরে নিয়ম না মেনেই ইট ভাটাগুলোতে কাঠ পোড়ানো হচ্ছে। পাশাপাশি কৌশলে ফসলি জমির মাটি ভাটাগুলোতে ব্যবহার করায় অসহায় হয়ে পড়েছেন কৃষকেরা। দীর্ঘদিনেও প্রশাসন কার্যকর পদক্ষেপ না নেওয়ায় ক্ষুব্ধ পরিবেশবিদরা। জেলা প্রশাসন বলছে, আইন না মানলে নেওয়া হবে ব্যবস্থা।

মাদারীপুর সদর উপজেলার পাঁচখোলা ইউনিয়নের জাজিরা এলাকায় কয়েক বছর ধরে গড়ে উঠছে মেসার্স বেপারী ব্রিকস্ নামের একটি ইটভাটা। যেখানে জ্বালানি হিসেবে কয়লা ব্যবহার করার কথা সেখানে ভাটার ভেতর স’মিল বসিয়ে পোড়ানো হচ্ছে কাঠ ও গাছপালা।

শুধু বেপারী ব্রিকস’ই নয়, এরসাথে জেএসবি, এমএমবি, এমআরকে ব্রিকস্সহ জেলার বেশকিছু ইটভাটায় সরকারি আইনকে বৃদ্ধাগুলি দেখিয়ে দেদারছে কাঠ পোড়ানো হচ্ছে। এসব অধিকাংশ ইটভাটার নেই পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র। ঘনবসতির তিন কিলোমিটারের মধ্যে ইটভাটা নির্মাণ নিষিদ্ধ থাকলেও মানছে না কেউ। ভাটা মালিকরা প্রভাবশালী হওয়ায় মামলা আর হামলার ভয়ে মুখ খুলতে চান না এলাকাবাসী।

এলাকাবাসীরা অভিযোগ করে বলেন, ইটভাটার কারণে ধুলাবালি হয়, ফসল নষ্ট হয়। এছাড়া ইটভাটায় কাঠ পোড়াতে নিষেধ করা হলেও তারা কাঠ পোড়ায়।

ভাটাগুলোর এমন কার্যক্রম নিয়ে ক্যামেরার সামনে কথা বলতে রাজি নন ইটভাটা মালিকরা। আর এ ব্যাপারে দীর্ঘদিনেও কার্যকর ব্যবস্থা না নেয়ায় ক্ষুব্ধ পরিবেশবিদরা।

মাদারীপুর পরিবেশ উন্নয়ন কমিটির আহবায়ক ড. বশির আহম্মদ বলেন, মনিটরিংটা যদি জোরদার হয়, তাহলে অবশ্যই এই ইটভাটাগ্রলোর কাঠ পোড়ানো বন্ধ হবে।

এ বিষয়ে মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন জানান, শিগগিরই ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ভাটাগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ইটভাটায় কাঠ কোনোভাবেই পোড়াতে পারবে না। কয়লা দিয়েই পোড়াতে হবে।

মাদারীপুরে পরিবেশ অধিদপ্তরের কোনো অফিস না থাকায় জেলার ছোটবড় মিলিয়ে অর্ধশত ইটভাটা নিয়ন্ত্রণ করে জেলা প্রশাসন।

সুত্র: সময় নিউজ


আপনার মতামত লিখুন :

Comments are closed.

এ জাতীয় আরো খবর