• বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:৫১ পূর্বাহ্ন
  • English Version

১০-১২ বছর আগে কোনো উদ্যোক্তাদের স্বপ্নই বাস্তবায়ন করা সম্ভব হতো না : পলক

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক / ৩৬ ফেসবুক শেয়ার
আপডেট সময় : সোমবার, ২০ ডিসেম্বর, ২০২১
bd tech news

জাতিসংঘ উন্নয়ন কর্মসূচির (ইউএনডিপি) ইয়্যুথ কো-ল্যাব আয়োজিত ৪র্থ বাংলাদেশ স্প্রিংবোর্ড গ্র্যান্ড পিচ পর্বে ব্যাক্টেরিয়া নিরোধোক পুনর্ব্যবহারযোগ্য স্যানিটারি ন্যাপকিন সেফপ্যাড-কে চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হয়। স্বাস্থ্যকর এই পণ্যটির উদ্ভাকদ্বয় হলেন তাহমিদ কামাল চৌধুরী এবং ত্রিনে অ্যাঞ্জেলেনা সিগ। প্রথম রানার্স আপ হয়েছে ই-বর্জ্য থেকে উৎপাদিত শক্তিতে চালিত ই-বাইক বোরাক অ্যানার্জিয়া। এই প্রযুক্তিটির উদ্ভাবক তানভীর ইসলাম ও আলিম আল রিয়াজ।

দ্বিতীয় রানার্সআপ হয়েছে শূন্য বর্জ পরিবেশ বান্ধব কমিউনিটি পিসাইকেল। আট সদস্যের এই দলে রয়েছেন ফারহানা আক্তার নেলি, জান্নাতুল বাকিয়া সুইটি, অং সিং হ্লা মারমা, ইরতিজা মাহমুদ চৌধুরী, উম্মে হাবিবা, দেওয়ান তাসলিম সালওয়া, মাহফুজুল হক এবং লাবণ্য লতিফ।

রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে রবিবার রাতে বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

এসময় প্রধানমন্ত্রীর পরবর্তী রূপকল্প ২০৪১ অনুযায়ী ‘উদ্ভাবনী বাংলাদেশ’বাস্তবায়নে দেশ ও বিশ্বের বর্তমান ও আসন্ন সমস্যার প্রাযুক্তিক সমাধান উদ্ভাবনে উদ্ভাবকদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, ইউএনডিপি এবং এটুআই এর অংশীদারিত্বে বিদায়ী দশক ছিলো ডিজিটাল বাংলাদেশের জন্য টার্নিং পয়েন্ট। এই সময়ে উদ্যোক্তাদের উদ্ভাবনী শক্তির জোরে বিকশিত হয়েছে দেশের আইসিটি শিল্প।সব মিলিয়ে প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার নেতৃত্বের কারণেই আজ দেশের অর্থনীতি শ্রমনির্ভরতা থেকে ইন্টারনেট নির্ভর হয়েছে।

পলক আরো বলেন, আজ থেকে ১০-১২ বছর আগে উদ্যোক্তাদের কোনো স্বপ্নই বাস্তবায়ন করা সম্ভব হতো না। তবে সবার জন্য ইন্টারনেট সংযোগ নিশ্চিত করে অন্তত ১৩ কোটি ইন্টারনেট গ্রাহক লক্ষ্য করে এখন উদ্যোক্তারা তাদের স্বপ্ন বাস্তবায়নের পথে এগিয়ে যেতে পারছেন। আর এজন্যই সকল উদ্যোক্তাদের প্রতিনিধি হিসেবে আমি প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি। তাঁকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। একইসঙ্গে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় ভাইয়ের প্রতি।

এর আগে বিচারক প্যানেলের পক্ষে বক্তব্য রাখেন ম্যারিকো বাংলাদেশের পরিচালক লিগ্যাল অ্যান্ড কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্স) মিসেস ক্রিস্টবেল র‌্যান্ডলফ, ইউএনডিপি বাংলাদেশের কৌশলগত উপদেষ্টা রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক এবং ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরাম প্রেসিডেন্সি অব বাংলাদেশের বিশেষ দূত আবুল কালাম আজাদ।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইউএনিডিপি বাংলাদেশের সহকারী আবাসিক প্রতিনিধি মোঃ আশিকুর রহমান।


আপনার মতামত লিখুন :

Comments are closed.

এ জাতীয় আরো খবর